ইউএফও নয় গোপন গোয়েন্দা বিমান স্বীকার সিআইএ’র
২০১৭

ইউএফও নয় গোপন গোয়েন্দা বিমান স্বীকার সিআইএ’র

January 03, 2015     Published Time : 04:56:19

সিআইএ

গত শতকের মধ্যভাগে যে সব অজ্ঞাত পরিচয় উড়ন্ত বস্তু বা ইউএফও দেখা গেছে তার অন্তত অর্ধেকই ছিল উচ্চ উচ্চতা দিয়ে উড়তে সক্ষম গোয়েন্দা তৎপরতা চালাতে সক্ষম গোপন নজরদারি বিমান। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ টুইটারে বার্তা এ কথা স্বীকার করেছে।

১৯৫০ এবং ১৯৬০’এর দশকে আকাশে ইউএফও দেখতে পেয়েছে বলে অনেক মার্কিন নাগরিক জানিয়েছে। এ সব ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভিন গ্রহের আগন্তুক হয়ত পৃথিবী আসার চেষ্টা করছে এমন এক বিশ্বাস জনমনে সে সময়ে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছিল। একে উপজীব্য করে, ইটি, বা স্টার ওয়ারস’এর মতো জনপ্রিয় সিনেমা তৈরি করেছে হলিউড। অন্যদিকে ইউএফও’র নামে যা দেখা গেছে তাকে দৃষ্টি বিভ্রাট, উদ্ভট কল্পনা বা নেহাত গাজাখুরি গাল-গল্প বলে মনে করেছেন অনেকে।

ভিন গ্রহের আগন্তুক বা গাজাখুরি গল্প নয় বরং গোপন গোয়েন্দা তৎপরতার কারণে এমন সব ইউএফও দেখা গেছে তা স্পষ্ট হয়ে উঠছে সিআইএ’র টুইটার বার্তা থেকে । এ ছাড়া, নিজ ওয়েবসাইটে ২০১৪ সালে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে ইউএফও সংক্রান্ত অধ্যায় সবচেয়ে বেশি পাঠক টেনেছে বলেও স্বীকার করেছে সিআইএ।

‘দি সিআইএ অ্যান্ড ইউ-২ প্রোগ্রাম, ১৯৫৪-১৯৭৪’ নামের প্রতিবেদনে ৬০ হাজার ফুটের বেশি উচ্চতা থেকে গোপন নজরদারি বা গোয়েন্দা তৎপরতার বিবরণ দেয়া হয়েছে। এ জাতীয় গোয়েন্দা বা নজরদারি তৎপরতা কি ভাবে ভূমিতে প্রচণ্ড কৌতূহলের কারণ হয়ে উঠেছিল তারও বিবরণ এতে দেয়া হয়েছে। ১৯৯৮ সালের এ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউ-২ বিমানের পরীক্ষা-নিরীক্ষা উচ্চ উচ্চতায় চালানোর ফলে অপ্রত্যাশিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। আর সেটি হলো, ইউএফও দেখার খবর প্রচণ্ড ভাবে বেড়ে যায়।

সিআইএ আরো বলেছে, ইউএফও দেখছে বলে যারা খবর দিয়েছে তাদের মধ্যে অনেকেই ছিলেন বাণিজ্যিক বিমানের পাইলট। তারা তুলনামূলক ভাবে নিম্ন উচ্চতা দিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় উচ্চ উচ্চতার বিমানকে এক ঝলক দেখতে পেয়েছে এবং ইউএফও বলে ভুল করেছে। ইউ-২ বিমানের রূপালি ডানায় রোদের প্রতিফলন ঘটেছে এবং এ বিমানের অন্তত ৪০ হাজার ফুট নিচু দিয়ে উড়ে যাওয়া বাণিজ্যিক বিমানের পাইলটের চোখে তা অগ্নিময় বস্তু হিসেবে ধরা পড়েছে।

৬০ হাজার ফুটের বেশি উচ্চতা দিয়ে কোনো কিছু উড়ে যেতে পারে না বলে সে সময় মনে করা হতো। কাজেই উচ্চ উচ্চতায় কোনো উড়ন্তবস্তু দেখার প্রত্যাশা স্বাভাবিকভাবেই করা হতো না বলে সিআইএ’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ইউএফও দেখতে পাওয়ার যে সব বিবরণ যে সময় প্রকাশিত হয়েছে তার অর্ধেকেই প্রকৃতপক্ষে ইউ-২কে উড়তে দেখেছে বলে জানিয়েছে সিআইএ।
Think Tank Bangladesh 21232-/ 03