মেয়েদের যে ৯টি কথা বলতে অস্বস্তি বোধ করেন ছেলেরা
২০১৭

মেয়েদের যে ৯টি কথা বলতে অস্বস্তি বোধ করেন ছেলেরা

November 20, 2014     Published Time : 04:39:58

মেয়েদের

আপনাদের সম্পর্ক যথেষ্ট গভীরতা পেলেও অনেক বিষয় থেকে যায় যা নিয়ে সোজাসাপটাভাবে কথা বলা যায় না। নারীদের বুক ফাটে তো মুখ ফোটে না প্রচলিত হলেও, পুরুষদের ক্ষেত্রেও এমন হয়ে থাকে। আপনি দূর থেকে হেঁটে আসছেন প্রেমিকের দিকে। আপনার প্রিয় মানুষটি অপলক দৃষ্টিতে আপনার দিকে তাকিয়ে আছেন। কাছে আসার পর তিনি অস্ফূট স্বরে বললেন, তোমাকে না পরীর মতো লাগছে। এমন আরো কথা আছে যা পুরুষরা বলতে মুখিয়ে থাকেন, কিন্তু বলতে পারেন না। এখানে দেখে নিন এমনই ৯টি কথা।

১. তোমার বেতন কত? আপনি চাকরিজীবী হয়ে থাকলে আপনার বেতনের অঙ্ক জানতে প্রেমিক উদগ্রীব হয়ে থাকেন। সরাসরি না বলে ঘুরিয়ে-পেঁচিয়ে প্রসঙ্গ তোলার চেষ্টা করেন। তিনি নিজের অফিস-সংক্রান্ত কথা তুলে বেতন বা বোনাস বা প্রমোশনের কথা বলতে থাকবেন। পেশাদার মিডিয়া ব্যক্তিত্ব দিপ্তী সাহু বলেন, পুরুষরা তার প্রেমিকার বেতন কাঠামো জানতে নিজেরটা নিয়ে আলোচনা করেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে নিজের বেতনটাও সঠিকভাবে বলেন না। তার উদ্দেশ্য থাকে আপনার বেতন জানা যায় কীভাবে।

২. আমি কেন তোমার চেয়ে বেশি উপার্জন করতে পারি না? আমরা এমন এক যুগে বাস করছি যেখানে নারী-পুরুষ পেশা ক্ষেত্রে সমান তালে এগিয়ে যাচ্ছেন। চাকরি বা ব্যবসা দুই ক্ষেত্রেই নারীরা তাদের যোগ্যতা দিয়ে এগিয়েও যাচ্ছেন। গতানুগতিক নিয়মটি হলো, পুরুষরাই সংসারের কর্তা এবং তিনিও উপার্জনক্ষম। এই বোধ থেকে তারা কখনো মেয়েদের বেশি উপার্জনকে স্বীকৃতি দিতে চান না। তাই আপনি প্রেমিকের চেয়ে বেশি ইনকাম করলেও তিনি বিষয়টি এড়িয়ে চলবেন। যদিও প্রশ্ন করার ইচ্ছে মনে থেকেই যায়।

৩. রান্না করো আর সংসার সামলাও মেয়েদের পছন্দের তালিকায় গল্প বা কবিতা থাকলে উৎসাহদাতা হিসেবে পুরুষদের পাওয়া যাবে না। মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সাঈদ নাগভি বলেন, ছেলেরা চান মেয়েরা ঘর-সংসার সামলানোর কাজ করুক। তাই কারো পড়ার অভ্যাস থাকলে তা ছেলেদের কাছে ভালো লাগে না। আবার এ কথা তারা সরাসরি বলতেও পারেন না।

৪. আপনার মাঝে অন্যকে দেখা বিষয়টিকে অভিযোগ হিসেবে তুলেছেন ফ্রি ল্যান্সার লেখিকা রোজি জেস। তিনি বলেন, প্রেমিকের বুকে মাথা রেখে যখন একটি রোমান্টিক মুহূর্ত কাটাচ্ছেন এবং প্রেমিক আপনাকে আরো কাছে টেনে নিতে উদ্যত, তখন তারা আসলে আপনার সঙ্গ উপভোগ করলেও তাদের চিন্তায় থাকে অন্য কোনো মেয়ের অস্তিত্ব যাকে সে মন দিয়ে পছন্দ করেন।

৫. সাবধান, ও শুধু আমার রাস্তা দিয়ে দুজন হেঁটে যাচ্ছেন, কোনো বখাটে যুবক বা অসভ্য পুরুষ সঙ্গিনীর দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে রয়েছে। বিজনেস মিডিয়ার এক পেশাদার কর্মী সৌরভ মিশ্র বলেন, এ অবস্থায় মনটা চায় ওই পুরুষকে বলতে যে, তাকালে খবর আছে। ও আমার প্রেমিকা। কিন্তু মেয়েটির কারণেই বলতে বাধা পায়। কারণ, এতে আমার প্রেয়সী মনে করতে পারে যে আমি তার ওপর গোয়েন্দাগিরি করছি।

৬. এত ঘন ঘন এমন করো না অনেক সময় আসে যখন প্রেমিকার প্রেম-ভালোবাসা এবং খেয়াল একটু বেশি বেশি দেখা যায়। তখন একটু পর পরই তার মন চায় সঙ্গীকে ফোন করতে বা মেসেজ দিতে। কিন্তু কীভাবে বলি, আমাকে পাঁচ মিনিট পর পর ফোন দিও না অথবা প্রতিটি মেসেজের উত্তর দিতে চাপ দিও না, বললেন প্রকৌশলের ছাত্র নিহাল সিং।

৭. আমার এক্স-কে নিয়ে কথা থাক সবার জীবনে সাবেক প্রেম বেশ স্পর্শকাতর বিষয়। সাধারণত আক্রমণাত্মক মুহূর্তে প্রেমিকা এ বিষয়টি তুলে আনেন। কিন্তু তখন শক্তভাবে বলা কঠিন হয়ে পড়ে যে, আমার আগের কাহিনী নিয়ে কথা তুলবে না।

৮. কী করতে হবে তা আমি সব সময় বুঝি এ বিষয়ের মুখোমুখি হতে একদম পছন্দ করেন না ছেলেরা। কোনো কারণে ব্যর্থ হলে ভেঙে পড়তে পারেন প্রেমিক। সে সময় আপনার সহায়তা তার খুব দরকার। কিন্তু একজন পুরুষ কীভাবে একজন নারীর কাছে সাহায্য চাইবেন? এটি তাদের পৌরুষত্বে লাগে। আবার এগিয়ে এলেও তার জবাব হবে যে তিনি জানেন কী করতে হবে।

৯. বন্ধুদের নিমন্ত্রণের বিষয়ে কথা না বলা ছেলেদের একটি বাজে অভ্যাস, যখন তখন সঙ্গিনীকে না জানিয়ে আড্ডার সময় ঠিক করে ফেলা। অথচ তারাও ভালো করেই জানে যে, শেষ পর্যন্ত তাদের আয়োজনের সব ব্যবস্থা সঙ্গিনীকেই করতে হবে। এর প্রস্তুতির জন্য আগে থেকে বলাটাকে এড়িয়ে চলেন ছেলেরা। পরে এ নিয়ে হয় একচোট ঝামেলা।
Think Tank Bangladesh 21232-/ 20