সরকারের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই এরশাদ
২০১৭

সরকারের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই এরশাদ

August 02, 2014     Published Time : 19:30:55

সরকারের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই এরশাদ

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ক্ষমতাসীন সরকার জানমালের নিরাপত্তা দিতে পারছে না। তাই তাদের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। প্রয়োজনে তিনি ও তাঁর দল সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামবেন।

আজ শনিবার দুপুরে জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে শরীয়তপুর জেলা জাতীয় পার্টির নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এরশাদ এ মন্তব্য করেন।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘প্রয়োজন হলে রাস্তায় নামব। তবুও সরকারের ব্যর্থতা তুলে ধরব। এ সরকার জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে পারেনি। তাই, তাদের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। খুন এবং গুমের কারণে বাংলাদেশ এখন কলঙ্কিত দেশ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। কে কখন গুম হয়ে যায়, তার গ্যারান্টি নেই। নদীতে লাশ ভেসে ওঠে। আমার সময়ে এমন ছিল না।’

এরশাদ বলেন, তাঁদের আন্দোলন হবে অহিংস। বিএনপি ও জামায়াতের সহিংস আন্দোলনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এর আগে যারা আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে, তাদের জন্য আল্লাহর আরশ কেঁপে উঠেছে। তাই, দলটি ক্ষমতায় যেতে পারেনি।’

এরশাদ আরও বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে আন্দোলন হয়েছিল শুধু ঢাকায়। আমি চাইলে ক্ষমতায় থাকতে পারতাম। কিন্তু মানুষ মেরে ক্ষমতায় থাকতে চাইনি। আমি তখন ১৮ থেকে ২০ ঘণ্টা কাজ করেছি মানুষের জন্য। সেই লোকগুলো যখন অন্যের প্ররোচনায় আমার বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছে, তখন আমি দেখতে চেয়েছি, আমি ছেড়ে দিলে তারা কেমন থাকে। প্রমাণিত হয়েছে তারা ভালো নেই।’

বিচারপতি সাহাবুদ্দিন তাঁর সঙ্গে ‘বেইমানি’ করেছেন ‘ইনজাস্টিস’ করেছেন বলেও অভিযোগ করেন এরশাদ।

এরশাদ বলেন, দেশের অগ্রগতি আওয়ামী লীগ বা বিএনপি সরকার কিছু করেনি। বেসরকারি খাতের অগ্রগতির কারণে দেশ এগিয়েছে। এ সময় তিনি নিজেকে ‘ফাদার অব প্রাইভেট সেক্টর’ বলেও দাবি করেন।

এরশাদ আরও বলেন, তিনি সাতটি বেসরকারি ব্যাংক ও ১৮টি বিমা কোম্পানি অনুমোদন দিয়েছিলেন। দলীয় কাউকে কোনো সুযোগ দেওয়া হয়নি। সে কারণে ৬ শতাংশ জিডিপি অর্জিত হয়েছে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘যারা ব্যাংক লুটের পর বলেন চার হাজার কোটি টাকা কিছুই না, তাদের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই।’

আজ নদীদূষণ ও দখল নিয়ে এরশাদ দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ-বিএনপি দেশকে কিছুই দিতে পারেনি। তারা দিয়েছে দলীয়করণ, টেন্ডারবাজি ও দখলবাজি। আজকে নদী দখল হয়ে যাচ্ছে। কয় দিন পরে হয়তো নদী নিয়ে আর কবিতা লিখতে পারব না।’ এরশাদকে দায়িত্ব দেওয়া হলে তিনি রাতারাতি নদীদূষণ ও দখল বন্ধ করে দিতে পারতেন বলেও দাবি করেন এরশাদ।

জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মাসুদুর রহমান মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ, জাতীয় পার্টির প্রেস ও পলিটিক্যাল সেক্রেটারি সুনীল শুভ রায় প্রমুখ।
Think Tank Bangladesh 21232-/ 02